চার্জার ফ্যানের দাম ২০২৪ কম দামে সেরা ফ্যান

তীব্র গরম ও লোডশেডিং এর কারণে আমাদের সাধারণ জীবনযাত্রা অনেকাংশে ব্যাহত হচ্ছে যার কারণে একজন মানুষ হিসেবে আপনি এই গরম থেকে মুক্ত ির বিকল্প পথ খুঁজে চলেছেন। তথ্য প্রযুক্তির এ যুগে এসে আপনাকে এখন একটি উন্নত হতে হবে কেননা বিজ্ঞান এখন অনেক দূর চলে গিয়েছে আপনি এখন গরম থেকে বাঁচার জন্য বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন।

অতিরিক্ত গরম বা লোডশেডিং এর কারণে আপনি হয়তো আপনার বাড়িতে যে বিদ্যুৎ রয়েছে সেটি ব্যবহার করে ফ্যান দীর্ঘ সময় চালাতে পারছেন না এ অবস্থায় আপনাকে বিকল্প পথ বাছাই করতে হবে। বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন ধরনের চার্জার ফ্যান পাওয়া যাচ্ছে এবং এ সকল চার্জার ফ্যানগুলো বিভিন্ন কোম্পানি দীপ্ত নতুন মডেলের প্রকাশ করে থাকে।

এ অবস্থায় আপনি যদি চার্জার ফ্যান কিনতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই প্রথমে একটি ব্র্যান্ড বাছাই করতে হবে এবং পরবর্তীতে সেই ব্র্যান্ডের শোরুম থেকে নির্দিষ্ট একটি দাম দিয়ে চার্জার ফ্যান ক্রয় করা উচিত। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা বেশ কিছু নতুন মডেলের চার্জার ফ্যানের দাম এখানে উল্লেখ করেছে যেগুলো আপনি বাছাই করে বাজার থেকে খুব সহজে ক্রয় করতে পারবেন।

বর্তমান বাজারে যে সকল চার্জার ফ্যানগুলো রয়েছে তার মধ্যে সর্বাধিক জনপ্রিয় হচ্ছে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ইলেকট্রনিক্স ব্যান্ড ওয়ালটন। আপনি যদি ওয়ালটনের চার্জার ফ্যান ক্রয় করতে চান তাহলে আপনাকে কম দামে ভালো মানের চার্জার ফ্যান গুলো পাওয়া সম্ভব। প্রযুক্তি ও দীর্ঘ সময় ব্যবহার করার জন্য ওয়ালটন দিচ্ছে আপনাকে বেশ কয়েক ধরনের চার্জার ফ্যান যার দামগুলো নিচের অংশে ধারাবাহিকভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

সাধারণভাবে ওয়ালটনের চার্জার ফ্যানের দাম শুরু হয় চার হাজার টাকা থেকে এবং তার শেষ হবে ১২০০০ টাকা অর্থাৎ আপনি ৪ হাজার টাকা থেকে ১২ হাজার টাকার মধ্যেই ওয়ালটনের সেরা মডেলের বেশ কিছু চার্জার ফ্যান পাচ্ছেন। আপনি যত দ্রুত সম্ভব ওয়ালটনের যেকোনো শোরুম থেকে বিভিন্ন ধরনের চার্জার ফ্যানগুলো ক্রয় করতে পারেন এবং এই চার্জার ফ্যানের দাম গুলো সাধারণত ফ্যানের সাইজের উপর নির্ভর করে।

Screenshot-2024-04-24-at-7-07-19-PM


Screenshot-2024-04-24-at-7-07-29-PM
Screenshot-2024-04-24-at-7-07-35-PM

ওয়ালটনের পাশাপাশি আরও একটি কোম্পানির বর্তমানে বাজারে চার্জার ফ্যান লঞ্চ করেছে যা হলো ভিশন। বাংলাদেশের একটি পুরাতন কোম্পানি যা ১৭ হাজার আমাদের বিভিন্ন ধরনের প্রযুক্তি ও ইলেকট্রনিক্স পণ্য স্বল্প দামে দিয়ে থাকে। সম্প্রতি বাজারে ভীষণ ব্যান্ডের বেশ কয়েকটি সুন্দর মডেলের চার্জার ফ্যান দেখা দিয়েছে এবং এই চার্জার ফ্যান গুলো দেখার পর প্রতিটি গ্রাহক এগুলো কেনার প্রতি আগ্রহী।

এ সকল চার্জার ফ্যানগুলোর বিভিন্ন ধরনের কার্যকারিতা রয়েছে যেমন আপনি যদি ওয়ালটনের ফ্যানগুলো ক্রয় করে থাকেন তাহলে আপনি একটানা চার্জ থেকে ৮ ঘণ্টা ব্যবহার করতে পারবেন। অন্যদিকে যারা ভীষণ ব্যবহার করে থাকে তারা এ চার্জার ফ্যানগুলো একবার চার্জ দিয়ে ৪ ঘন্টা থেকে ৬ ঘণ্টার মধ্যেও ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন। সুতরাং যাদের এলাকায় বা যাদের বাড়িতে চার্জার ফ্যানের অত্যন্ত জরুরি রয়েছে তারা যত দ্রুত সম্ভব ওয়ালটন অথবা পিছনের যে কোন একটি রিচার্জেবল ফ্যান ক্রয় করতে পারেন এবং সেই ফ্যান ব্যবহার করে আপনার এই গরম নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

এই দুইটি কোম্পানি ব্যতীত বর্তমানে আরো বেশ কিছু অন্যান্য ব্র্যান্ডের চার্জার ফ্যান রয়েছে যে চার্জার ফ্যানগুলো আপনি সচরাচর বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক্স দোকানে দেখতে পাবেন। আমরা আপনাদের জন্য এ সকল চার্জার ফ্যানের একটি তালিকা তৈরি করেছি এবং এর পাশাপাশি সকল ফ্যানগুলো কত টাকার মধ্যে ক্রয় করা সম্ভব সেই সংক্রান্ত একটু ধারণা দিয়েছে।

চার্জার ফ্যান কেনার পূর্বে অবশ্যই আপনি অফিসিয়াল কোন ব্র্যান্ডের শোরুম থেকে ক্রয় করার চেষ্টা করুন এবং সেখানে যে ওয়ারেন্টি রয়েছে সেটি যাচাই করার পর ক্রয় করুন। আমরা শুধুমাত্র আপনাদের এখানে চার্জার ফ্যানের একটি দাম সম্পর্কে ধারণা দিয়েছি।

Leave a comment